অনলাইন জব ইন্টারভিউ নিয়ে কিছু টিপস

অনলাইন জব ইন্টারভিউ নিয়ে কিছু টিপস

 
অনলাইন ইন্টারভিউ বলতে বোঝায় কোনো অনলাইন চ্যাট, ভিডিও বা অডিও প্ল্যাটফর্মে চাকরি প্রার্থীদের যে ইন্টারভিউ নেয়া হয়, সেটা। প্রযুক্তির উন্নতির ফলে এখন অনলাইনে প্রার্থীদের ইন্টারভিউ নেয়াই নিয়োগকর্তাদের জন্য সাশ্রয়ী এবং সুবিধাজনক হয়েছে উঠেছে।
অনলাইন জব ইন্টারভিউ -এর ফলে যাতায়াতের খরচ বেঁচে যাচ্ছে, ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া দ্রুততর হচ্ছে এবং ম্যানেজাররা দেশ-বিদেশের প্রার্থীদেরও ইন্টারভিউ নিতে পারছে।
আপনি যদি চাকরি প্রার্থী হন, তাহলে আপনাকেও হয়তো অদূর ভবিষ্যতে এমন কোনো অনলাইন ইন্টারভিউতে অংশ নিতে হতে পারে। এ ধরনের ইন্টারভিউ-এর জন্য প্রস্তুতি একটা বড় বিষয়। অনলাইন ইন্টারভিউ বিষয়ে ঠিকভাবে প্রস্তুতি নেয়ার জন্য যে বিষয়গুলি বিবেচনা করবেন:
 

প্রযুক্তির সাথে সম্পর্কিত বিষয়গুলি আগেই টেস্ট করে নিন

আগেই প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ এবং সফটওয়্যারের সাথে পরিচিত হয়ে নিন। ইন্টারভিউ অ্যাপয়েনমেন্টের আগে আপনার বন্ধু বা পরিবারের কারো সাথে একটা টেস্ট কল দিয়ে দেখতে পারেন। আপনার মাইক্রোফোন এবং স্পিকার ঠিকমতো কাজ করছে কিনা তা নিশ্চিত করুন। এবং আপনার ইন্টারনেট কানেকশন যেন হাই-স্পিড লাইভ ভিডিও সাপোর্ট করে, সেটাও নিশ্চিত করুন। এছাড়া ইন্টারভিউতে বসার আগে অবশ্যই স্ক্রিনে আপনার প্রফেশনাল নাম ব্যবহার করবেন, যাতে প্রশ্নকর্তারা আপনাকে সহজে চিনতে পারে।
 

প্র্যাকটিস বা অনুশীলনের বিকল্প নেই 

প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি চেক করা হয়ে গেলে আপনাকে এখন ইন্টারভিউর বিভিন্ন কলা-কৌশল রপ্ত করতে হবে। আপনার কাছের কাউকে দায়িত্ব দিতে পারেন, যেন সে ভিডিও কলে আপনার টেস্ট ইন্টারভিউ নেয়। ইন্টারভিউ দেয়ার সময় আপনার কম্পিউটার কতটুকু ল্যাগ করে বা আটকে আসে, এ বিষয়টা মাথায় রাখবেন। এবং যখন অন্য প্রান্তে কেউ কথা বলছে, তখন নিজে কথা বলবেন না। মনোযোগ দিয়ে অন্যদের কথা শোনা এবং ধীরে ধীরে ও স্পষ্টভাবে কথা বলার প্র্যাকটিস করুন। আপনি যত প্র্যাকটিস করবেন, আসল ইন্টারভিউর সময় আপনি ততই আত্মবিশ্বাসী থাকতে পারবেন।

স্থান ঠিক করুন

ইন্টারভিউর নির্ধারিত সময়ের আগেই আপনাকে ঠিক করে নিতে হবে কোথায় বসে আপনি ইন্টারভিউ এবেন। এমন একটা ঘর বেছে নিন, যেখানে বাইরের শব্দ একেবারে কম। যেখানে শব্দের কারণে আপনার মনোযোগ নষ্ট হবে না।
বাসার অন্য সদস্যরা যাতে জানে আপনি ইন্টারভিউ দিচ্ছেন। তারা যেন আপনাকে কোনোভাবে বিরক্ত না করে, সেদিকে খেয়াল রাখুন। 
রুমে কোনো পোষা প্রাণী থাকলে সেটাকে সরিয়ে ফেলুন। আর আপনার পেছনের বা ব্যাকগ্রাউন্ডের পরিবেশ যদি ভালো হয়, তবে ইন্টারভিউ কর্তারা বুঝতে পারবে যে, আপনি চাকরি বিষয়ে সিরিয়াস।

চোখের দিকে তাকান

অনলাইন ইন্টারভিউর সময় প্রশ্নকর্তার চোখের দিকে তাকানো বেশ কঠিন মনে হতে পারে। তাই প্রশ্নের উত্তর দেয়ার সময় আপনার দৃষ্টি অবশ্যই সরাসরি ওয়েব ক্যামের দিকে থাকতে হবে। স্ক্রিনে প্রশ্নকর্তা কিংবা নিজের দিকে তাকানো যাবে না। চোখের দিকে তাকালে এবং কথার মাঝখানে মাথা নাড়লে ইন্টারভিউয়ার বুঝতে পারবে আপনি তার সাথে সংযুক্ত আছেন এবং মনোযোগ দিয়ে কথা শুনছেন।
 

বডি ল্যাংগুয়েজের দিকে বিশেষ দৃষ্টি রাখুন

ভিডিওতে বডি ল্যাংগুয়েজের দিকে নজর রাখা অনেক সময় কঠিন হয়ে যায়। তাই কথা বলার সময় আপনার অঙ্গভঙ্গির দিকে বিশেষভাবে নজর রাখবেন। প্রশ্নকর্তা যখন কথা বলবে, তখন মৃদু হাসি দিতে এবং মাথা নাড়াতে ভুলবেন না। সোজা হয়ে বসবেন এবং আপনার আচরণ দেখেই যেন বোঝা যায় যে আপনি ইন্টারভিউ দিচ্ছেন। যেহেতু ইন্টারভিউ শেষে হাত মেলানো বা হ্যান্ডশেক-এর সুযোগ পাবেন না, আপনাকে অন্য কোনো উপায়ে প্রফেশনাল মনোভাব এবং মার্জিত আচরণ দেখানোর উপায় খুঁজে বের করতে হবে।

পরবর্তীতে খোঁজ নিন

জব ইন্টারভিউ শেষ হওয়ার পর আপনার উচিৎ হবে প্রশ্নকর্তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে একটা নোট দেয়া। এক্ষেত্রে কোনো ধরনের কার্ডের মাধ্যমে ধন্যবাদ জানাতে পারেন বা ই-মেইলও পাঠাতে পারেন। এরপর জবাবের জন্য কিছুদিন অপেক্ষা করুন। উত্তর না পেলে নিজে থেকেই তাদের সাথে যোগাযোগ করুন। জিজ্ঞেস করুন যে, এখনো নিয়োগ প্রক্রিয়া চলমান আছে কিনা। অথবা আপনার বিষয়ে তাদের আর কোনো তথ্যের প্রয়োজন আছে কিনা সেটাও জিজ্ঞেস করুন। আর যেকোনো সময় যোগাযোগের ক্ষেত্রে অবশ্যই তাদের মূল্যবান সময় দেয়ার জন্য প্রশ্নকর্তা বা ইন্টারভিউয়ারকে ধন্যবাদ জানাতে ভুলবেন না। 
 
#জব ইন্টারভিউ#চাকরি #ইন্টারভিউ #টিপস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *